বাড়িঅন্যান্যকালকিনিতে এমপিকে শুভেচ্ছা জানানো নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০

কালকিনিতে এমপিকে শুভেচ্ছা জানানো নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০

মাদারীপুরের কালকিনিতে স্থানীয় সাংসদ ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপের উপস্থিতিতেই ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে সংঘর্ষ ও পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে ১০ জন আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
রোববার সন্ধ্যায় কালকিনি উপজেলা সার্কিট হাউসে ইফতার অনুষ্ঠানে ঘটনা ঘটে। এ সময় একাধিক বোমা বিস্ফোরণের ঘটনাও ঘটে বলে জানা গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, কালকিনি পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ইফতার অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ৫ শতাধিক মানুষ অংশ গ্রহণ করেন। স্থানীয় এমপিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো নিয়ে কালকিনি উপজেলা ‘মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চে’র সভাপতি মুরাদ হোসেনের সঙ্গে ‘মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চ’ কালকিনি সৈয়দ আবুল হোসেন কলেজ শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি এস এম নাদিমের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় দু’পক্ষের হাতাহাতি শুরু হয়।
উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। ‘মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চে’র কলেজ শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি এস এম নাদিম আহত হন। উভয় পক্ষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া করে। উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
কালকিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিন ফকির বলেন, মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চের নতুন কমিটি হয়েছে তারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এখানে ছাত্রলীগের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চের কলেজ শাখা ও উপজেলা শাখার নেতারা দ্বন্দ্ব করেছে।
পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল বাসার বলেন, ইফতার অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চের উপজেলা শাখা হতে এমপি মহোদয়কে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর প্রস্তুতি নেয়। কিন্তু অপর পক্ষ কলেজ শাখার নেতাদের বিষয়টি জানায়নি। এটা নিয়ে উভয় পক্ষ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া করেছে।
কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইশতিয়াক আশফাক রাসেল বলেন, ঘটনার পরই অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। উত্তেজনা বিরাজ করায় পুলিশের টহল জোরদার করা হলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments