বাড়িরাজনৈতিককাশিমপুর কারাগারে প্রদীপ ও লিয়াকত

কাশিমপুর কারাগারে প্রদীপ ও লিয়াকত

 

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান (৩৬) হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি কক্সবাজারের টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির সাবেক পরিদর্শক লিয়াকত আলীকে গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বুধবার রাত পৌনে ৯টার দিকে প্রিজন ভ্যানে করে তাঁদের ওই কারাগারে আনা হয়।
কারা কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় ৩১ জানুয়ারি প্রদীপ কুমার দাশ ও লিয়াকত আলীকে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। পরে তাঁদের চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। বুধবার ওসি প্রদীপ ও পরিদর্শক লিয়াকতকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে প্রিজন ভ্যানে কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের উদ্দেশ্যে পাঠানো হয়। পরে রাত পৌনে ৯টার দিকে প্রিজন ভ্যান কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে এসে পৌছান ৷
কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ জেল সুপার মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হওয়ায় তাঁদের মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের জন্য নির্ধারিত সেলেই রাখা হবে।
সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও পরিদর্শক মো. লিয়াকত আলীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। গত ৩১ জানুয়ারি কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ ইসমাইল এ রায় ঘোষণা করেন।
রায়ে টেকনাফ থানার এসআই নন্দদুলাল রক্ষিত এবং কনস্টেবল রুবেল শর্মা ও সাগর দেবের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছে। এ ছাড়া ওই মামলায় কক্সবাজারের বাহারছড়ার মারিশবুনিয়া গ্রামের মো. নুরুল আমিন, মোহাম্মদ আইয়াজ ও মো. নিজাম উদ্দিনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ মামলার বাকি সাত আসামি খালাস পেয়েছেন।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments