বাড়িঅন্যান্যভারতের যোধপুরে ঈদের দিনে সহিংসতা, কারফিউ জারি

ভারতের যোধপুরে ঈদের দিনে সহিংসতা, কারফিউ জারি

ভারতের যোধপুরে ঈদের দিনে সহিংসতা, কারফিউ জারি

ভারতের রাজস্থানে ঈদের দিন সহিংসতার ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার রাজস্থানের যোধপুরের জালোরি গেট এলাকায় ঈদের দিন ধর্মীয় পতাকা নিয়ে বিবাদ ও আগের দিন রাতে হিন্দু ও মুসলিম ধর্মাবলম্বী দুই সম্প্রদায়ের মধ্যে সংঘর্ষের পর কারফিউ জারি করা হয়েছে। ঈদের নামাজ করা হয়েছে পুলিশি সুরক্ষায়। গুজব রুখতে সেখানকার ইন্টারনেট সেবাও স্থগিত কার হয়েছে। মঙ্গলবার ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

স্থানীয় পুলিশ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শক্তি প্রয়োগ করে পুলিশ। তবে তার আগে, বেশ কয়েকটি এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে পাথর ছোড়াছুড়ি এবং সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলেও এখনো এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। এই ঘটনায় তেমন কোনো হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

পুলিশ কন্ট্রোল রুম জানিয়েছে, উদয় মন্দির, নাগোরি গেট, খণ্ডা ফলসা, প্রতাপ নগর, দেব নগর, সুর সাগর এবং সর্দারপুরা থানার সীমার মধ্যে থাকা সব অঞ্চলে আগামীকাল মধ্যরাত পর্যন্ত কারফিউ জারি করা হয়েছে। জনগণকে গুজব ছড়ানো থেকে বিরত রাখতে যোধপুরে ইন্টারনেট পরিষেবাও স্থগিত করা হয়েছে।

যোধপুরের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট জনগণের প্রতি শান্তি বজায় রাখার আবেদন জানিয়েছেন। পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে আলোচনার জন্য একটি উচ্চ-পর্যায়ের বৈঠক ডেকেছেন তিনি এবং রাজ্যের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের যোধপুরে পাঠানো হয়েছে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে।

অশোক গেহলট এক টুইটে বলেছেন, যোধপুর, মারওয়ারের জনগণের মধ্যকার ভালোবাসা ও ভ্রাতৃত্বের ঐতিহ্যকে সম্মান করার এখনই উপযুক্ত সময়। শান্তি বজায় রাখতে ও আইনশৃঙ্খলা পুনরুদ্ধারে সহযোগিতা করার জন্য সমস্ত পক্ষের কাছে আন্তরিক আবেদন জানাচ্ছি।

যোধপুরে তিন দিনব্যাপী পরশুরাম জয়ন্তী উৎসবও চলছে। সোমবার রাতে উভয় সম্প্রদায়ের ধর্মীয় পতাকা লাগানো নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার সূত্রপাত হয় এবং তা থেকেই পরে লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ সদস্যরা কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ ও লাঠিপেটা করে।

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments