বাড়িবরিশাল বিভাগবরগুনা জেলাভোটারদের টাকা দিতেবাঁধা দেওয়ায় ছুরিকাঘাতে চেয়ারম্যান সমর্থক কে হত্যা। আটক-৩

ভোটারদের টাকা দিতেবাঁধা দেওয়ায় ছুরিকাঘাতে চেয়ারম্যান সমর্থক কে হত্যা। আটক-৩

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি: 

বরগুনার আমতলীতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটারদের টাকা দিতে বাঁধা দেয়ায় চেয়ারম্যান প্রাথর্ী মোতাহার উদ্দিন মৃধার সমর্থক হিরন গাজীকে (৫৫) ছুরিকা ঘাতে অপর চেয়ারম্যানপ্রাথর্ী আবুলবাশার নয়ন মৃধার সমর্থকরা খুন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ নিহত হিরন গাজীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরন করেছে। ঘটনা ঘটেছে আমতলী উপজেলার আমতলী সদর ইউনিয়নের পুর্ব মহিষডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পশ্চিম পাশে অনিল সাজ্জাল বাড়ীর সামনে বুধবার রাত সাড়ে ১১ টারদিকে। এ ঘঁটনায় আমতলী থানা পুলিশ গোলাম কিবরিয়া,মেহেদী হাসান ও মাহাবুব প্যাদা নামের ০৩জন কে আটক করেছে ।

আগামী ২৮ এপিল ্র আমতলী সদর ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চন। এ নিবার্চনে ৯ জন চেয়ারম্যানপ্রাথর্ী প্রতিদ্বন্ধিতাকরছেন। অভিযোগ রয়েছে দুই চেয়ারম্যান প্রাথর্ী মোতাহার উদ্দিনমৃধা ও আবুলবাশার নয়ন মৃধা ভোটারদেও টাকা বিতরন করছেন । বুধবাররাত ১১ টার দিকে আবুলবাশার নয়ন মৃধারসমর্থক ইউসুফ, কাদেও সরদার ও শহীদ মালাকার সহ ৪০-৪৫জন পুর্ব মহিষডাঙ্গা গ্রামে ভোটারদেও টাকা দিচ্ছিল। এ সময় মোতাহার মৃধার সমর্থক হিরনগাজীসহ ১০-১২ জন টাকা দিতে বাঁধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয় নয়নমৃধার সমর্থকরা। এক পর্যায় আবুলবাশার নয়ন মৃধার সমর্থকদেও মাঝে এ নিয়ে কথাকাটাকাটি হয় । এক পর্যায়ে দুর্বৃত্তরা হিরন গাজিকে ছুরিকাঘাত করে। ছুরিকাঘাতে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখম হয়। তাৎক্ষনিক হিরনের সহযোগী মিলন সরদার, ও দেলোয়ার সরদার সহ ১০/১২ জন মিলে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়েআসে। ওই হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ কাঙ্খিতা মন্ডল তৃণা তাকে মৃত্যু ঘোষনা করেন। রাতেই পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার সকালে তার মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরন করেছে। এ ঘঁনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।বৃহস্পতিবার দুপুওে বরগুনা জেলা প্রশাসক মো: হাবিবুর রহমান ,পুলিশ সুপার আব্দুস ছালাম পিপিএম, সহকারী পুলিশসুপার রুহল আমিন সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারেক হাসান ও ওসি কাজী সাখাওয়াত হোসেন তপ ুঘটনা স্থল পরিদর্শণ করেছেন।

চেয়ারম্যান প্রাথর্ী মোতাহার উদ্দিন মৃধা বলেন, আবুল বাশার নয়ন মৃধার নেতৃত্বে তার ভাই পান্নুমৃধা ও আজাদসহ ৪০-৫০গ্রামে ঢুকে টাকা বিতরন করছিল। ওই সময় আমার লোকজন ঘোড়া ঘোড়া বলে ডাক চিৎকার দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আমার সমর্থক হিরন গাজীকে পিটিয়ে ও ছুরিকাঘাতে হত্য াকরেছে।আমি এ হত্যা কান্ডের বিচার দাবী করছি।

অপর চেয়ারম্যানপ্রাথর্ী আবুল বাশার নয়ন মৃধা সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি গতকাল আমার ব্যবসার কাজে বাসায় সিসিক্যামেরার আওতায় ছিলাম। মোতাহার মৃধা ও তার লোকজন দিয়েই হিরনকে হত্যা করে পরিকল্পিত ভাবে আমার উপর দায় চাপানোর অপ চেষ্টা চালাচ্ছেন । আমি এ হত্যা কান্ডের বিচার দাবী করছি।

আমতলী থানার ওসি কাজী সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, ভোটারদেও টাকা দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই চেয়ারম্যান প্রাথর্ীর সমর্থকদেও মধ্যে কথা কাটা কাটি হয়। এক পর্যায় হিরনগাজী নামের একজনকে ছুরিকাঘাত করে। হাসপাতালেআনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকেমৃত্যু ঘোষনা করেন । এ ঘটনায় থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে। তিনি আরো বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার চেষ্টা অব্যাহত আছে।

 

RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments